ঢাকা শুক্রবার, ১৯শে জুলাই, ২০১৯ ইং, ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
basic-bank
শিরোনাম :
«» নওগাঁ’র পাহাড়পুরে ল্যাট্রিনের সেফটি ট্যাংকিতে নেমে এক যুবকের মৃত্যু — আহত দুই «» নওগাঁর মান্দায় বানভাসী মানুষের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ «» এবার ঝিনাইদহের শৈলকুপা  ছাত্রীকে ধর্ষণ, থানায় মামলা «» হরিণাকুন্ডুর কাপাশাহাটিয়া ইউনিয়নে উপ-নির্বাচনে নৌকা মার্কার পক্ষে পথসভা «» খুলনার সাফল্যে গাঁথা নারী ইউএনও চিরিরবন্দরের কন্যা শাহনাজ বেগম «» রূপসায় সেনের বাজার স্ট্যান্ডে দু’গ্রæপের সংঘর্ষে আহত ৭ «» দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী সফরসঙ্গী আবু জাফর রাজু ড়া «» লাইনচ্যুত হয়ে প্রায় ৫০০ মিটার হেছড়ে স্টেশন প্লাটফর্মে গিয়ে পৌছায় «» নেত্রকোনায় প্রকাশ্য দিবালোকে শিশুর গলা কাটা মস্তক নিয়ে ঘুরে বেড়ানো ঘটনায় শিশু হন্তারক গণপিটুনিতে নিহত «» বীরগঞ্জে ১৩জন অস্বচ্ছল, প্রতিবন্ধী ও বয়স্কদের মাঝে ভাতা’র বই বিতরণ

নওগাঁ জেলা বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে যৌন উত্তেজক সিরাপ জব্দ, গ্রেফতার ১০

নওগাঁ প্রতিনিধি:  নওগাঁ জেলা বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ১২ লাখ ৭০ হাজার টাকার যৌন উত্তেজক সিরাপ জব্দ ও ১০ জনকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন জানান, ফাস্টফুড ইন্ড্রা: প্রা: লি: আফুরিয়া পাবনা বাংলাদেশ কর্তৃক তৈরীকৃত ফাস্ট কিংস আপ ফ্লুড সিরাপ খেয়ে এক ব্যাক্তির একটি খুন ও ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। সমগ্র জেলায় বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হয় যে, ফাস্ট কিংস আপ ফ্রুট সিরাপ টি যৌন উত্তেজনা বর্ধক সিরাপ। এর পর আমার নির্দেশনায় ওসি ডিবি কে এম শামসুদ্দিন এর নেতৃত্বে সমগ্র জেলায় একটি অভিযান চালিয়ে ফাস্ট কিংস আপ ফ্রুটসহ বিভিন্ন কোম্পানির যৌন উত্তেজনা বর্ধক ১৮ হাজার ৪শ ১৭ বোতল সিরাপ জব্দ করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য ১২ লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং এই বিষয়ে ৪ টি মামলা হয়েছে। তিনি আরও জানান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার লিমন রায় এর নেতৃত্বে পাবনা জেলাতে অভিযান চালিয়ে ফাস্ট ফ্রুট কিংস এর মালিকসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ বিষয়ে বিভিন্ন সময়ে মোট ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার ওই কারখানায় অভিযান চালানো হয়। এ সময় ফাতেমা কেমিকেল কোম্পানির মালিক ফরিদ উদ্দিন পাশাসহ ২ কর্মচারীকে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত ফরিদ উদ্দিন পাশাকে ১ বছর এবং কর্মচারী মাঈন উদ্দিনকে ৩ মাস ও হেলালকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। অভিযানে অংশ গ্রহণ নেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আলী, জেলা বিএসটিআই কর্মকর্তা সাফায়েত হোসেন। অভিযান শেষে ২০ লাখ টাকার মালামাল ধ্বংস করা হয়।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ