ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০শে জুন, ২০১৯ ইং, ৬ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
basic-bank
শিরোনাম :

নেত্রকোনায় প্রকাশ্য দিবালোকে নিজ ঘরে মৎস্যজীবী খুন : মস্তক বিছিন্ন : হত্যাকারী আটক

এ কে এম আব্দুল্লাহ, নেত্রকোনা : নেত্রকোনা সদর উপজেলার চল্লিশা ইউনিয়নের সাকুয়া বাজার সংলগ্ন গন্ধবপুর গ্রামের মৎস্যজীবী বিষ্ণু চন্দ্র বর্মণকে (৬০) মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তার বসত ঘরের ভিতর প্রকাশ্য দিবালোকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে খুন করা হয়েছে। হত্যাকারী এ সময় বিষ্ণুর শরীর থেকে তার মাথা বিছিন্ন করে পেলে। ঘটনার পরপরই পুলিশ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত তাসকিনকে (৩০) তার বাড়ি থেকে আটক করেছে।

নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ ফখরুজ্জামান জুয়েল স্থানীয় লোকজনের বরাত দিয়ে জানান, মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিষ্ণু তার বসত ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন। এ সময় একই এলাকার তাসকিন নামের এক যুবক বিষ্ণুর ঘরে ঢুকে ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে তাকে হত্যা করে। হত্যাকারী বিষ্ণুর শরীর থেকে মাথা বিছিন্ন করে পেলে পালিয়ে যায়। প্রতিবেশীরা তাসকিনকে বিষ্ণুর ঘর থেকে রক্তমাখা শরীর নিয়ে বের হতে দেখে ডাক চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা বিষ্ণুর ঘরে এসে দেখে তার নিথর দেহ বিচানায় পড়ে রয়েছে। স্থানীয় লোকজন তাৎক্ষনিক বিষয়টি নেত্রকোনা মডের থানাকে জানালে পুলিশ দ্রæত ঘটনাস্থলে পৌছে তাসকিনের বাড়ি ঘেরাও করে তাকে আটক করে। তাসকিন সাবেক নেত্রকোনা জেলা সমবায় অফিসার এম এ আহাদের পুত্র।

নেত্রকোনা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলাম জানান, লাশের সুরত হাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়না দন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘাতক তাসকিনকে আটক করা হয়েছে। কি কারণে এই নৃশংস হত্যাকান্ড ঘটানো হয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ