ঢাকা বুধবার, ২২শে মে, ২০১৯ ইং, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
basic-bank
ADD
শিরোনাম :

নেত্রকোনায় সড়ক ও জনপথ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের মানববন্ধন : স্মারকলিপি

এ কে এম আব্দুল্লাহ, নেত্রকোনা : নেত্রকোনা সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোঃ শাকিরুল ইসলাম দায়িত্ব পালন কালে বারহাট্টা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী সাখাওয়াত হোসেন তার অনুসারীদের নিয়ে সরকারী কাজে বাঁধা প্রদান ও প্রকৌশলীর উপর ন্যাক্কারজনক হামলার প্রতিবাদে এবং হামলাকারীদের দ্রæত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে নেত্রকোনায় মানববন্ধন করেছে বিক্ষুব্ধ শ্রমিক কর্মচারীরা।বাংলাদেশ সড়ক ও জনপথ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন নেত্রকোনা জেলা সংসদের উদ্যোগে গতকাল বুধবার সকাল ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত প্রেসক্লাব সড়কে এই মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়।

মানববন্ধন চলাকালে এ ন্যাক্কার জনক হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে হামলাকারী ইউপি চেয়ারম্যান কাজী সাখাওয়াতসহ সকল আসামীদেরকে গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সড়ক ও জনপথ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ আইয়ূব আলী, সাধারন সম্পাদক মোঃ আবুল হাসান, সহ-সভাপতি রতন মিয়া, সহ-সভাপতি সঞ্জিত কুমার ঘোষ, সহ-সভাপতি মাহমুদুল হাসান, সহ সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, সাংগঠিক সম্পাদক সানিমুল হক সোহাগ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মিজানুর রহমান, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক খন্দকার পান্না আক্তার, কোষাধ্যক্ষ সুব্রত রায়, প্রচার সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন প্রমূখ। পরে শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করে।

উল্লেখ্য, গত ২মে সওজের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী শাকিরুল ইসলাম বারহাট্টা উপজেলাধীন বড়ি নামক এলাকায় রাস্তার কার্পেটিং কাজ দেখাশুনা করা কালে বারহাট্টা সদর ইউপি চেয়ারম্যান কাজী সাখাওয়াত হোসেন তার লোকজন নিয়ে চাঁদা দাবী করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে প্রকৌশলীর উপর হামলা চালিয়ে বেদড়ক মারপিট করে। এ ঘটনায় প্রকৌশলী বাদী হয়ে ঐদিন রাতেই চেয়ারম্যানসহ অজ্ঞাত ৫/৬ জনকে আসামী করে বারহাট্টা থানায় মামলা দায়ের করে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ