ঢাকা বুধবার, ২৪শে জুলাই, ২০১৯ ইং, ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
basic-bank
শিরোনাম :

বাগমারায় লিচু ফলনে বিপর্যয়’বাজারে দাম চড়া

নাজিম হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় লিচু চড়া দামে বিক্রি হলেও ফলনে বিপর্যয়ের কারণে বাগান মালিকদের মুখে হাসি নেই। উপজেলার বাজার গুলোতে টসটসে লিচু তবে দাম তুলনামূলক অনেক বেশি বলে জানিয়েছেন ক্রেতারা। আর বিক্রেতারা বলছেন, সরবরাহ কম থাকায় দাম বেশি। এবারের মৌসুমে শিলা বৃষ্টিতে এ অঞ্চলের লিচু ব্যবসায়ীদের লোকসান গুনতে হচেছ। উপজেলার তাহেরপুর,ভবানীগঞ্জ,মোহনগঞ্জসহ ২টি পৌরসভা ও ১৬টি ইউনিয়নের কয়েক শত গ্রামের আবাদ হয়েছে মৌসুমী মিস্টি ফল লিচু। এ বছরে লিচুর মুকুল ব্যাপক আসাতে লিচু চাষীরা মনে করে ছিলেন এবার বাম্পার ফলন হবে লিচুর। কিন্তু এ জন্য শতশত বাগান মালিকরা লিচু উচ্চ দামে বিক্রির জন্য বাগানে প্রচুর যতœ নিয়ে ছিলেন। কিন্তু এর সম্পূর্ণ বিপরীত দিকে প্রতিয়মান হয়েছে। পরপর ৪/৫ বার ব্যাপক বৃষ্টি ও কালবৈশাখী ঝড়ে লিচুর বাগান লন্ডভন্ড হয়ে যায়। এতে প্রায় শর্তাধিক বড় বড় বাগানের গাছ থেকে লিচু পড়ে ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে কৃষকেরা। যার কারণে তারা ইচ্ছামত বাগান ব্যাপারীদের কাছে বিক্রি করতে পারেনি। এ উপজেলায় প্রতি বছর বাগানের পরিমান বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রতি বিঘা জমিতে প্রায় ২০টি মত লিচু চারা রোপন করা যায়। তাছাড়া বাড়ির আঙ্গিনায় অনেক কৃষক লিচু বাগান করেছেন। আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে এবার লিচু উৎপাদন কম হয়েছে। এণাড়া প্রাকৃতিক দূর্যোগের কারণে ফলন বিপর্যয় ঘটেছে। তাছাড়া যে সকল বাগান ৩/৪ লাখ টাকায় বিক্রি হত সে সমস্থ বাগান গুলো মাত্র ২০ হাজার টাকা থেকে ২৫ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে। গত বারে যে বাগান ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছিল সে সকল বাগান গুলো মাত্র ৮/১০ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থ বাগান মালিকেরা জানিয়েছেন। গত বছরে এ অঞ্চল থেকে কোটি টাকা লিচু বিক্রি হলেও এবার কত টাকা বিক্রি হয়েছে তার সঠিক তথ্য কৃষি স¤প্রাসারণ অধিদপ্তর ও বাগান মালিকেরা দিতে পারেনি। তবে বাগান মালিকদের দাবি দফায় দফায় বৃষ্টি হওয়ায় বাগানের ব্যাপক ক্ষতি না হলে প্রায় অর্ধকোটি টাকার উপরে লিচু বিক্রির হওয়ার সম্ভবনা ছিল।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ