ঢাকা বুধবার, ২৬শে জুন, ২০১৯ ইং, ১২ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
basic-bank
শিরোনাম :
«» গাইবান্ধায় অনুর্দ্ধ-১২ ক্রিকেট কার্ণিভাল অনুষ্ঠিত «» গোবিন্দগঞ্জে খাদ্য গুদামে চাল নিয়ে চালবাজী «» সাদুল্ল্যাপুরে ভিজিডি কর্মসূচির নিম্নমানের১০২বস্তা চাল আটক «» গাইবান্ধা ও কুড়িগ্রাম জেলার মা ও শিশুর পুষ্টি উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রকল্প বাস্তবায়নে অবহিতকরণ সভা «» নিয়োগ বানিজ্য ঠেকাতে জনতার সমূখ্যে গাইবান্ধা জেলা পুলিশ সুপার «» বিধবা কে ধর্ষনের চেষ্টায় মামলার আসামিকে আটকের দাবী «» গাইবান্ধায় পিপিআই কমিটির আলোচনা সভা «» রাজবাড়ীতে বাল্যবিবাহের তথ্য দিয়ে ৫ হাজার টাকা পুরষ্কার পেলেন পুলিশ অফিসার  «» নব-নির্বাচিত এম পি গোলাম মোহাম্মদ সিরাজকে অভিনন্দন জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন আলহাজ্ব মোশরফ হোসেন এম পি «» কাহালু পৌরসভার ২০১৯-২০ইং অর্থ বছরের প্রায় সোয়া ১৩ কোটি টাকা বাজেট ঘোষনা

বিএনপির ‘পকেট’ কমিটি গঠনের অভিযোগে নেতাদের সংবাদ সম্মেলন

আক্কেলপুর (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি : সদ্য ঘোষিত জয়পুরহাট জেলা বিএনপির ‘পকেট’ কমিটি গঠনের অভিযোগ তুলে বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন জয়পুরহাটের আক্কেলপুর পৌর বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ও সাবেক পৌর বিএনপির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম সরদার।

আজ রোববার বেলা ১১ টায় উপজেলা পরিষদের সামনে তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে রেজাউল করিম সরদার বলেন, আমি এই মনগড়া ‘পকেট’ কমিটি গঠনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমি ২০০২ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত আক্কেলপুর পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডে নির্বাচিত কাউন্সিলর ছিলাম। এবং ২০১৫ সালের ৩০শে ডিসেম্বর পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির দলীয় মনোনয়ন পেয়ে ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিলাম। ওই নির্বাচনে দলের সিদ্ধান্তের বাহিরে সাবেক পৌর বিএনপির সভাপতি আলমগীর চৌধুরী বাদশা মোবাইল মার্কা প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করায় আমি পরাজিত হই। তিনি নির্বাচন না করলে আমি নিশ্চিত জয়ী হতাম।

রেজাউল করিম সরদার আরও বলেন গত ২০১৫ সালে ২৩ ফেব্রæয়ারী বিএনপির কেন্দ্রের কর্মসূচী সমাপ্ত করে আমার নিজ ব্যবস্যা প্রতিষ্ঠানে বসে থাকা অবস্থায় আওয়ামী লীগের কিছু নেতাকর্মীদের দ্বারা হামলার শিকার হই। ওই হামলার ঘটনায় আমি ঢাকা হলিফেমেলী হাসপাতালের আইসিওতে দীর্ঘ ১৫ দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিলাম।

গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের দ্বারা মিথ্যা মামলার আসামী হয়েছি। রাজনীতি করতে গিয়ে আমি আর্থিকভাবে মারতœক ক্ষতিগ্রস্থ্য হয়েছি। বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার মানবেতর জীবনযাপন করছি। ভেবেছিলাম এতো ত্যাগ স্বীকার করার কারনে দল আমাকে মূল্যায়ীত করবেন। এবং জেলা বিএনপির কমিটিতে যোগ্যতা অনুযায়ী আমাকে কোন একটি পদে রাখা হবে বলে দীর্ঘদিন থেকে আশায় ছিলাম। কিন্তু গত ১৫ মে সদ্য ঘোষিত জেলা বিএনপির নতুন কমিটি ঘোষনা করা হয়। সেখানে বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগের যোগদান কৃত ৮-১০ নেতাকর্মীকে ওই কমিটিতে বিভিন্ন পদে রাখা হয়েছে। এবং যারা দূঃসময়ে বিএনপির মাঠপর্যায়ে কোন ভূমিকাই রাখেননি তাদেরকে এই কমিটিতে রাখা হয়েছে। তিনি অবিলম্বে তথাকথিত কমিটি বাতিল করে তাকে নিয়ে নতুন কমিটি গঠন করার দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মজু, পৌরসভার আট নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি ও কাউন্সিলর আব্দুল মবিন ভোনা, উপজেলা বিএনপির সদস্য হুমায়ন খালেদ, সাত নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি রেজাউল করিম, ছাত্র নেতা সবুজ হোসেন, ডি.এম বাবলু, আজাম্মেল হোসেন প্রমুখ।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ