ঢাকা বুধবার, ২৪শে জুলাই, ২০১৯ ইং, ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
basic-bank
শিরোনাম :
«» এইচ.এস.সি পরীক্ষায় আলাইপুর ডিগ্রি কলেজের সাফল্য «» তরকারী স্বাদ না হওয়ায় স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা «» নাটোরের বাগাতিপাড়ায় ভূমি বিষয়ক দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা   «» ট্রাক থেকে ১২,৫০০ পিস ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক «» মেরিন ড্রাইভ সড়ক থেকে যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার «» দুই আদিবাসীকে শিক্ষা সহায়তা প্রদান করল মানবসেবা «» চট্টগ্রামের পতেঙ্গা লালদিয়া চরের উচ্ছেদকৃত মানুষের আহাজারীতে কাঁপছে আকাশ-বাতাস «» আইন হাতে তুলে নিয়ে নিজেদের অপরাধি বানাবেন না -পুলিশ সুপার «» পঞ্চগড়ে ভারতীয় সীমান্তে প্রবেশ কালে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশী গরু ব্যবসায়ী আহত «» লামা উপজেলাধীন ফাইতং ইউনিয়নের  ইটভাটা মালিকদের অবৈধ পাহাড়  কাটা 

সাঙ্গু ও মাতামুহুরী নদীর পানি বেড়ে তলিয়ে গেছে : পানিবন্দি ১০ হাজার মানুষ

অবিরাম বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে সাঙ্গু ও মাতামুহুরী নদীর পানি বেড়ে তলিয়ে গেছে বান্দরবানের নিচু এলাকা। প্রায় ১০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে ১২শ’ পরিবারকে। এখনো জেলার সঙ্গে সারাদেশের সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। এদিকে চেঙ্গী নদীর পানি কমলেও মাইনীর পানি কমেনি। পানি নামার পর ভাঙছে সড়ক।সাত দিনের টানা বর্ষণে প্রায় তলিয়ে গেছে বান্দরবানের বেশিরভাগ এলাকার বসতবাড়ি। সাঙ্গু ও মাতামুহুরী নদীর পানি বেড়ে শহরের আর্মিপাড়া, ইসলামপুর, অফিসার্স ক্লাবসহ বেশিরভাগ এলাকায় পানি উঠেছে। প্লাবিত হয়েছে লামা, আলিকদম, থানচি ও রুমা উপজেলা। সড়ক ডুবে যাওয়ায় অভ্যন্তরীণ যোগাযোগও বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। পাহাড় ধসের আশংকায় হাজারো পরিবারকে আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

একজন ভুক্তভোগী বলেন, আমরা খুবই কষ্টে বসবাস করছি। ঘর-বাড়ি সব কিছু পানিতে চলে গেছে।খাগড়াছড়িতে জলাবদ্ধতা কিছুটা কমেছে। তবে মাইনী নদীর পানি এখনও কমেনি। সড়ক থেকে পানি নেমে সৃষ্টি হচ্ছে ভাঙন। চলাচলে দুর্ভোগ বেড়েছে স্থানীয়দের। পাহাড় ধসের শঙ্কায় এখনো আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে অবস্থান করছে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার মানুষ।বান্দরবান ও খাগড়াছড়িতে ১ শ’ ৬৮টি আশ্রয়কেন্দ্রে দুর্গতদের মাঝে খাবার বিতরণ করেছে জেলা প্রশাসন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ