ঢাকা রবিবার, ২১শে জুলাই, ২০১৯ ইং, ৬ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
basic-bank
শিরোনাম :
«» জীবননগরে সীমান্তবর্তী এলাকায় ভুয়া পানি বাবার আবির্ভাব, ভক্তদের ভিড় এক ফুঁতে সব রোগ ভালো «» রাজশাহীতে আমন রোপণ ব্যাহত,কাঙ্ক্ষিত বৃষ্টির দেখা নেই «» রাজশাহীতে ছেলেধরা গুজবে মাইকিংয়ের নির্দেশনা,নারীসহ দুই যুবককে গণপিটুনি «» চুয়াডাঙ্গা পরিদর্শনে পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি হাবিবুর রহমান  «» গ্রামের মানুষের জন্যে নিজ টাকায় রাস্তা সংস্কার করলের যুবলীগ নেতা মিজান «» কোম্পানীগঞ্জে জেল থেকে বের হওয়ার ১৫ দিনের মাথায় প্রতিপক্ষের পিটুনিতে যুবক নিহত «» ফরিদপুরে জাল টাকাসহ আটক-২ «» দিনাজপুরে নবরূপী’র মাসিক সাহিত্য বাসরে কবি সাহিত্যিকদের মিলন মেলা «» দিনাজপুর দোকান কর্মচারী ইউনিয়নের বিশেষ সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত «» দিনাজপুরে শীঘ্রই পাইপ লাইনে গ্যাস আসছে

সুনামগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিতে সুনামগঞ্জে নদ নদীর পানি বাড়ছে। গত ২৪ ঘন্টায় সুনামগঞ্জে ৪১৫ মি.মি. বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ পয়েন্টে সুরমা নদীর পানি বিপদ সীমার ৬৮ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের পানি ক্রমাগত বাড়ছে। সীমান্ত নদী যাদুকাটা, সোমেশ্বরী, চলতি, খাসিয়ামারাসহ অন্যান্য নদ নদীর পানিও বিপদ সীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সুনামগঞ্জ জেলা শহরের পিটিআই ক্যাম্পাস ও ভবন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, শহরের সাব বাড়ি এলাকা, কাজীর পয়েন্ট, নবীনগর, উকিল পাড়াসহ বিভিন্ন এলাকা নিমজ্জিত হয়েছে।

পিটিআই ভবনের নিচ তলা ও হোস্টেলের নিচতলায় পানি প্রবেশ করেছে। এতে বিপাকে পড়েছেন প্রশিক্ষণার্থী প্রায় আড়াইশ শিক্ষক।

মো. আবু বকর সিদ্দিক ভূইয়া, নির্বাহী প্রকৌশলী পানি উন্নয়ন বোর্ড সুনামগঞ্জ জানান, ভারতের মেঘালয়ে প্রচুর বৃষ্টিপাতের কারণে ঢলে পানি সুনামগঞ্জে নামছে। এতে শহরসহ নিম্নাঞ্চলও প্লাবিত হচ্ছে।

এদিকে, বৃহষ্পতিবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় প্রতিটি উপজেলায় কন্ট্রোল রুম খোলার নির্দেশনা দিয়েছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ।

অপরদিকে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর, তাহিরপুর, ধর্মপাশা, দোয়ারা বাজার, শাল্লা ও জামালগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে পাহাড়ী ঢলে রাস্তাঘাট তলিয়ে যায়, এতে সাচনা বাজার হতে জেলা শহরে যেতে রাস্তার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।

এদিকে, পাহাড়ি ঢলের পানিতে ভেসে আসা লাকড়ি ধরতে গিয়ে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের বৌলাই নদীর স্রোতের তোড়ে ভেসে গিয়ে রোজিনা বেগম (৩০) নামের এক নারী নিখোঁজ হন।

উপজেলার বালিজুড়ি ইউনিয়নের দক্ষিণকূল গ্রামের সামনে দিয়ে বয়েচলা বৌলাই নদীতে বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই নারী নিখোঁজ হন। রোজিনা উপজেলার বালিজুড়ি মডেল ইউনিয়নের দক্ষিণকুল গ্রামের শ্রমজীবী জয়নাল আবেদীনের স্ত্রী ও চার সন্তানের জননী।

নিখোঁজ রোজিনার স্বামী জয়নাল আবেদীন জানান, গ্রামের অন্যান্য লোকজনের দেখাদেখি বাড়ির পাশে বয়েচলা বৌলাই নদীতে ওপারের পাহাড়ি ঢলের সাথে ভেসে আসা লাকড়ি ধরতে বৃহস্পতিবার দুপুরে নদীতে নামেন রোজিনা।

প্রবল বেগে ধেয়ে আসা পাহাড়ি ঢলের স্রোতের তোড়ে মুহুর্তেই ভেসে গিয়ে নদীতেই নিখোঁজ হন রোজিনা। 

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ