ঢাকা বুধবার, ২৪শে জুলাই, ২০১৯ ইং, ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
basic-bank
শিরোনাম :
«» ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সার্টিফিকেট জালিয়াতি মামলায় গ্রেফতার দুই «» ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের পর এবার ডাকবাংলায় ২৫ টাকার ঔষুধ ৬শ টাকায় বিক্রি, জরিমানা আদায় «» ঝিনাইদহের বৈডাঙ্গায় গুজবে কান না দেওয়ার জন্য ঝিনাইদহ থানা পুলিশের উদ্যোগে গণ-সচেতনামূলক সভা অনুষ্ঠিত «» ঝিনাইদহে পুকুর ডোবায় নেই পানি, পানির অভাবে পাট জাগ দিতে মহাবিপাকে পাটচাষীরা «» ঝিনাইদহে বর্ণাঢ্য আয়োজনে কসাসের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত «» ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামানের নির্দেশে ও শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রহমানের নেতৃত্বে গুজব বন্ধে শৈলকুপায় পুলিশের প্রচারাভিযান শুরু «» দিনাজপুরে পাবলিক সার্ভি দিবসে বর্ণাঢ্য র‌্যালী অনুষ্ঠিত «» মাছের চাষে ভরপুর জেলা মোদের দিনাজপুর «» ফুলবাড়ীতে পাবলিক সার্ভিস দিবস পালনে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» ফুলবাড়ীতে টিউশনির অর্থে শিক্ষার্থীকে পাঠ্যবই প্রদান

বগুড়ায় স্কুলছাত্রী সেমন্তীর আত্বহত্যা বিচারের দাবিতে বাবা মা ও বোনের মানব বন্ধন

মেহেদী হাসান লিটন,অতিথি প্রতিবেদকঃ বগুড়ায় ওয়াই এম সিএ পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের ১০ ম শ্রেণীর ছাত্রী মাইসা ফাহমিদা সেমন্তীর আত্ব হত্যায় প্ররোচনা কারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে মানব বন্ধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে স্কুলের সামনেই সেমন্তীর বাবা হাসানুল মাশরেক রুমন, মা জান্নাতুল ফেরদৌস ও ছোট বোন মাইসা জাহিদা রুপন্তী প্লাকার্ড বুকে ঝুলিয়ে মানব বন্ধন শুরু করে। শ্রামন্তীর মার বুকে ঝুলানো প্লাকার্ডে লিখা ছিল “আত্ব হত্যার প্ররোচনা হত্যা করার সামিল, এটা হত্যার অপরাধ”। এসময় তাদের দুই পরিচিতজন এসে মানব বন্ধনে অংশ নেয়। পরিবারের সদস্যদের এই মানব বন্ধন চলাকালে সেমন্তীর বাবা হাসানুল মাশরেক রুমন সাংবাদিকদের বলেন, আমার মেয়ের আত্ব হত্যার প্ররোচনা দানকারির বিচার চেয়ে তার স্কুলের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদেও  মানব বন্ধনে দাঁড়ানোর কথা ছিল। কিন্তু আজ সকালে তারা মানব বন্ধনে দাঁড়াতে অস্বিকার করে। কি কারনে কার ভয়ে তারা মানব বন্ধনে অংশ নিচ্ছেনা তা আমার জানা নেই। এসময় তিনি আরো বলেন, আমার মেয়ে আত্ব হত্যার পর বেশ কিছুদিন পার হয়ে গেছে। তার আত্ব হত্যায় কেউ প্ররোচনা দান করেছে এবিষয় নিয়ে আমরা মামলা করতে গেলেও প্রথমে পুলিশ তা নেয়নি। পরে পুলিশ একটি অভিযোগের কাগজ জমা নিলেও এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এঘটনার ফেসবুকের যে আলামত গুলি আমার কাছে ছিল তাও পুলিশ কে দিয়েছি। কিন্তু তারা কোন ব্যবস্থাই নেয়নি।
মানব বন্ধনে না দাঁড়ানোর বিষয়ে জানতে চাইলে ওয়াই এম সিএ পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের সহকারি প্রধান শিক্ষক পারভিন আক্তার জানান, সেমন্তীর বাবা কাল সোমবার স্কুলে এসেছিল। তিনি সেমন্তীর ক্লাশের কন্ধুদের সাথে কথা বলেছেন। কিন্তু মানব বন্ধন করবেন এমনটা বলেননি। তাই সকালে হঠাৎ করে এসে বলায় আমরা বের হইনি।
এদিকে মানব বন্ধনের কথা শুনে আগেথেকেই প্রশাসনের লোকজন গিয়ে সেখানে অবস্থান নেয়।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ