ঢাকা শুক্রবার, ১৯শে জুলাই, ২০১৯ ইং, ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
basic-bank
শিরোনাম :
«» জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে গোপালগঞ্জে মাছের পোনা অবমুক্তি, বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» মেহেরপুরে নান আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন «» খুলনা বিভাগীয় সমাবেশ সফল করতে মেহেরপুরে বিএনপি’র গণমিছিল «» জাতীয় মৎস্য সপ্তাহর উদ্বোধন মধুখালীতে «» মধুখালী উপজেলা পর্যায়ে ফাইনাল খেলার «» আধুনিক মানসম্মত এক্স-রে মেশিন টি আর ৫০০ এমএম এক্স-রে মেশিন চিকিৎসা সেবায় অবদান রাখবে প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বকসী বাচ্চু «» ভাঙ্গুড়ায় ছেলে ধরা আটক -২ «» বয়স্ক ভাতার টাকা তুলতে গিয়ে নারী আহত «» ডাকাত দলের দু’ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ «» সান্তাহারে কলেজ ছাত্রীকে উক্তত্য করার প্রতিবাদে মারপিট আহত-৩,আটক-১

নুসরাতের বাবা-মাকে সান্ত্বনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

সংবাদ প্রতিক্ষণ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছে ফেনীর সোনাগাজীতে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করা মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির পরিবার।সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে নুসরাতের বাবা এ কে এম মুসা ও মা শিরিন আক্তারসহ দুই ভাই শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন।এ সময় প্রধানমন্ত্রী নুসরাতের পরিবারের প্রতি সান্ত্বনা ও গভীর সমবেদনা জানান। তিনি বলেন, দুষ্কৃতকারীরা কেউই আইনের হাত থেকে ছাড় পাবে না।নিহত নুসরাতের পরিবারকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন প্রধানমন্ত্রী।গত ২৭ মার্চ নুসরাতকে মাদ্রাসার নিজ কক্ষে নিয়ে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সে ঘটনার পর থেকে সিরাজ উদদৌলা কারাগারে আছেন।এর মধ্যেই ৬ এপ্রিল সকালে আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় যান নুসরাত জাহান রাফি। কয়েকজন তাঁকে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে করা মামলা তুলে নিতে চাপ দেন। তিনি অস্বীকৃতি জানালে তাঁর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলা, পৌর কাউন্সিলর মাকসুদ আলমসহ আটজনের নাম উল্লেখ করে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন রাফির বড় ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান।১০ এপ্রিল রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে মারা যান অগ্নিদগ্ধ নুসরাত।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ